নিউজ

সেনাপ্রধানের ফোনালাপ ফাঁস ঢাকা থেকেই: শেখ হাসিনাকে নিরাপত্তা দিতো শীর্ষ সন্ত্রাসী জোসেফ-হারিস!

।। বিশেষ প্রতিবেদন ।।
লণ্ডন ৭ অক্টোবর – বাংলাদেশের সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ এর সঙ্গে তাঁর কোর্সমেট লন্ডন প্রবাসী কর্নেল শহীদ উদ্দিন খানের ফোনালাপ ফাঁস হয়েছে বাংলাদেশ থেকেই। এই চাঞ্চল্যকর ফোনালাপে সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের সীমাহীন দুর্নীতি লুটপাট গুম আর খুনের জন্য জড়িত বিভিন্ন ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর নাম পরিচয় এবং সরকারের শীর্ষ মহল থেকে এসব কর্মে সহযোগিতা ও নির্দেশনার বিভিন্ন তথ্য সেনা প্রধানের মুখ থেকে বেরিয়ে এসেছে।

এ ব্যাপারে সাপ্তাহিক সুরমার অনুসন্ধানে আরও জানা গেছে, ফোনালাপে প্রকাশ না হওয়া আরো কিছু চুম্বক অংশ রয়েছে। চলতি বছরের ২৮ এপ্রিল থেকে জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহ পর্যন্ত বেশ কয়েকবার তাঁদের দুজনের মধ্যে টেলি সংলাপ হয়। বাংলাদেশ পলিটিকো এর মধ্যে অল্প কয়েকটি অংশ নিয়ে ও কর্নেল শহীদের সাক্ষাৎকারভিত্তিক অনুষ্ঠানটিতে প্রচার করে ।

অপ্রকাশিত ফোনালাপের কয়েকটি চাঞ্চল্যকর অংশের উদ্ধৃতি দেন কর্নেল শহীদ।
জেনারেল আজিজ এর ভাই শীর্ষ সন্ত্রাসী জোসেফ ও খুনের দায়ে অভিযুক্ত আরেক ভাই হারিস ঢাকায় বেশ কয়েকটি ক্যাসিনো পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন। এ ব্যাপারে ফোনালাপে জেনারেল আজিজ বলেন বিভিন্ন মহলে সমালোচনার মুখে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে এটা সুরাহা করতে তাঁর কাছে যান। তখন প্রধানমন্ত্রী তাঁকে বলেন, যারা তোমার বিরুদ্ধে বলছে তারা আরো অনেক কিছুই বলেছে। বলেছে তুমি আমার বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করতে চাও ইত্যাদি । কিন্তু আমি তাদের বলেছি তোমার ভাইয়েরা যখন আমার নিরাপত্তা দিচ্ছিল আশি সালের পর থেকে; তখন তারা কোথায় ছিল? যাও তোমার চিন্তা করার দরকার নাই।”

এনিয়ে সাপ্তাহিক সুরমাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কর্ণেল শহীদ আরো বলেন, তাঁর সঙ্গে জেনারেল আজিজের কথোপকথনের সামান্য একটা অংশ মাত্র প্রকাশিত হয়েছে । তিনি নিশ্চিত করেন এই ফোনালাপ তিনি প্রকাশ করেননি। কারণ বিভিন্ন কারণে তিনি এটি প্রকাশকে সংগত মনে করেননি। যদিও তাঁর কাছে ফোনালাপের রেকর্ড গুলো রয়েছে । কর্নেল শহীদ ফোনালাপ প্রকাশ করেননি” এই দাবি সুস্পষ্টভাবে প্রকাশের পর এই প্রশ্ন দেখা দিয়েছে, তাহলে এটি কিভাবে প্রকাশিত হলো? বিভিন্ন অনুসন্ধানে এটি মোটামুটি নিশ্চিত হওয়া গেছে বাংলাদেশ থেকেই গত কয়েক বছর সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ টেলি সংলাপ যারা বেআইনিভাবে বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রকাশ করে দিয়েছ, এটা তাদের কাজ হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি এবং অতি অবশ্যই এর সঙ্গে সরকারের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গের সম্পর্ক থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয়া যায় না। তবে এ নিয়ে মন্তব্য করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাউকে পাওয়া যায়নি।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

Back to top button
Close
Close