নিউজ

ব্রিটিশ-বাংলাদেশী প্রফেসনালদের সমন্বিত উদ্যোগ

গ্রামীণ জনপদে ইউকে জিপি পদ্ধতির স্বাস্থ্যসেবা দেবে নিউলাইফ মেডিক্যাল সার্ভিস

লণ্ডন, ৯ জুন : বাংলাদেশের সিলেট জেলার বিশ্বনাথ উপজেলায় ইউকের জিপি পদ্ধতির স্বাস্থ্যসেবা দিতে এগিয়ে এসেছে ব্রিটিশ-বাংলাদেশী প্রফেশনালদের সমন্বয়ে গঠিত নিউলাইফ মেডিক্যাল সার্ভিস। গত ৭ জুন, সোমবার লণ্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সাথে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সংস্থার নেতৃবৃন্দ এই ঘোষণা দেন।

পুর্ব লণ্ডনের একটি রেস্টুরেন্টে সন্ধ্যা ৭টায় আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে নিউলাইফ মেডিক্যাল সার্ভিসের ডাইরেক্টর এবং এডভাইজারদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ডা. এম মিজানুর রহমান ছমির, ডাক্তার আব্দুর রহিম, ডাক্তার আলী আহমদ শোয়েব, ডাক্তার আবু তাহের মো. বাহার, আব্দুল হামিদ ও আকতারুজ্জামান। চ্যারিটি সংস্থা বাংলাদেশ হেল্থ এসিটেন্স ফাণ্ড এর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন চেয়ারম্যান শোয়েব সেলিম।

উল্লেখ্য, নিউলাইফ মেডিক্যাল সার্ভিস বাংলাদেশী অরিজিন হেল্থ প্রফেশনালদের সমন্বয়ে ২০২০ সালে কাজ শুরু করে। এটি হচ্ছে একটি ইন্টারন্যাশনাল স্যোশাল এন্টারপ্রাইজ। তাদের লক্ষ্য হচ্ছে ইউকে জিপি পদ্ধতির সেবা বাংলাদেশে পৌঁছে দেয়া। এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে তাদের প্রথম মেডিক্যাল সার্ভিস সিলেটের বিশ্বনাথে শুরু করতে যাচ্ছে। এই মেডিক্যাল সেন্টারে সেবা গ্রহীতা গরিব রোগীদের ব্যায়ভার বহন করবে ইউকেভিত্তিক চ্যারিটি সংস্থা বাংলাদেশ হেল্থ এসিস্টেন্ট ফা-। নিউলাইফ মেডিক্যাল সার্ভিস সিলেটে আরোও শাখা খোলার আশা পোষণ করছে। তাছাড়া নিউলাইফ ক্লিনিকের ডাক্তারদেরকে ল-নের মেডিক্যাল টিম প্রশিক্ষণ অব্যাহত রাখবে।

নিউলাইফ মেডিক্যাল সার্ভিসের এমন যুগান্তকারী পদক্ষেপের প্রশংসা করে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের স্পীকার কাউন্সিলার মোহাম্মদ আহবাব হোসেন, গ্রেটার সিলেট কাউন্সিলের চেয়ার ব্যারিস্টার আতাউর রহমান, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন ইউক’র সেক্রেটারি ডা. জিয়াউল হক, ব্রিটিশ-বাংলাদেশ চেম্বারের সাবেক প্রেসিডেন্ট শাহগীর বখত ফারুক, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সৈয়দ নাহাস পাশা, ব্যারিস্টার আবুল কালাম ও নিউহ্যাম কাউন্সিলের সাবেক ডেপুটি স্পিকার ব্যারিস্টার নজির আহমদ ও কমিউনিটি নেতা মির্জা আসহাব বেগ। সংবাদ সম্মেলনের শেষ পর্যায়ে প্রজেক্টের সাফল্য কামনা কওে মোনাজাত করেন শায়েখ আব্দুর রহমান মাদানী।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

Back to top button
Close
Close