নিউজ

দেশে করোনায় নববিবাহত বৃটেনপ্রবাসীর মৃত্যু

।। সুরমা ডেস্ক ।।
লণ্ডন, ৪ নভেম্বর – দেশে গিয়ে সবেমাত্র দাম্পত্যজীবনে পা দিয়েছিলেন। নবদম্পতির হাতের মেহেদির রং মুছে যাবার আগেই ভয়ঙ্কর করোনা নিভিয়ে দিলো বৃটেনপ্রবাসী কাওসারের জীবনপ্রদীপ, তছনছ করে দিলো নববধূর জীবন।
সিলেটে বিয়ের ১৮ দিনের মাথায় কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বৃটেনপ্রবাসী ওই যুবক। নিহত কাওসার (৩৯) আহমদ সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের তুরুকখলা গ্রামের বাসিন্দা। তার পিতা কানাডা প্রবাসী কিনু মিয়া, আদি নিবাস গোলাপগজ্ঞ উপজেলার লক্ষিপাশা ইউনিয়নের নিমাদল গ্রামে। তিনি দাউদপুর ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। গত ৩ নভেম্বর, মঙ্গলবার বেলা দেড়টার দিকে সিলেট মাউন্ট এডোরা হসপিটালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। ওইদিনই এশার নামাজের পর তুরুকখলা ঈদগাহ মাঠে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাওছারের জানাযা শেষে পারিবারিক করবস্থানে তাঁর দাফন সম্পন্ন হয়।
কাওছার আহমদের মা-বাবাসহ পরিবারের সবাই কানাডায় বসবাস করেন। তবে তিনি যুক্তরাজ্যের লেস্টার শহরে থাকতেন। মাত্র দুই মাস আগে কাওছার বৃটেনে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ পান। মাসখানেক আগে তিনি দেশে যান এবং মাত্র ১৮ দিন আগে তাঁর বিয়ে সম্পন্ন হয়।
এরই মাঝে শরীরে করোনার উপসর্গগুলো দেখা দিলে কাওছার নমুনা পরীক্ষার জন্য দেন। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তিনি সিলেট মাউন্ট এডোরা হসপিটালে ভর্তি হন এবং মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে কাওছার মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

কাওছার আহমদের মৃত্যুর সংবাদে বৃটেন ও বাংলাদেশের তাঁর আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধুবান্ধবসহ পরিচিত মহলে শোকের সঞ্চার করে এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এইকরুণ মৃত্যুর সংবাদ ও শোক ব্যাপকভাবে প্রচারিত হয়।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

Back to top button
Close
Close