আল জাজিরার সংবাদের সত্যতা প্রমাণিত:

অপহরণের ৯ মাস পর কারাগারে ক্যাপ্টেন জহুর-এর মৃত্যু: দায়ী কে? তারেক সিদ্দিক, নিরাপত্তা বাহিনী নাকি সরকার? ।। বিশেষ প্রতিবেদক ।।লন্ডন, ১৩ নভেম্বর – অবশেষে বাংলাদেশ সরকার স্বয়ং আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা’র সংবাদের  সত্যতা প্রমাণ করলো। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা গত ২০ মার্চ বাংলাদেশের একজন সাবেক সেনা কর্মকর্তা’র সুনির্দিষ্ট ও তথ্যভিত্তিক অভিযোগের প্রেক্ষিতে  “বাংলাদেশ: শীর্ষ নিরাপত্তা কর্মকর্তা অপহরণের দায়ে […]

Continue Reading

লণ্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের “জার্নালিজম: এথিক্স এণ্ড স্ট্যাণ্ডার্ড” শীর্ষক আলোচনা, সততা ও তথ্যের দায়িত্ব নিয়েই সাংবাদিকতা করতে হবে

লণ্ডন, ১৩ নভেম্বর – সততা, নির্ভরযোগ্য তথ্য পরিবেশন এবং স্বচ্ছতা হচ্ছে সাংবাদিকতার নীতিমালার প্রধানতম বিষয়। এসবে দৃষ্টি রেখেই সাংবাদিকতা করতে হবে। সাংবাদিকদেরও অন্যান্য মানুষের মতো ভুল হবে, তবে যথার্থতার ক্ষেত্রে চেষ্টায় যেনো দুর্বলতা না থাকে। লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের আয়োজনে কুইনম্যারী ইউনির্ভাসিটি অব লন্ডনে অনুষ্ঠিত ক্লাবের বার্ষিক আলোচনায় প্যানেল আলোচকরা এসব কথা বলেন। গত ৫ […]

Continue Reading

আওয়ামী মিথ্যাচারের রাজনীতি: পাকিস্তান কি ১৯৭১-এর অপরাধের জন্য ক্ষমা চেয়েছিল?

মন্তব‍্যকথা:।। ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানা ।।অনেকে দাবি করেন, পাকিস্তান ৭১-এর অপরাধের জন্য ক্ষমা চায়নি। তাদের ক্ষমা চাইতে হবে- এ নিয়ে তারা নানা মন্তব্য করেন। আমাদেরও মনে হয়, এই গণহত্যা করে পাকিস্তান ক্ষমা না চেয়ে থাকবে, সেটা হতে দেওয়া যায় না। আমরা ইতিহাসে কি দেখি? পাকিস্তান কি আসলেই ক্ষমা চেয়েছিল? আমরা কি ক্ষমা গ্রহণ করেছিলাম? ১৯৭৪-এর ৫ […]

Continue Reading

বিশেষ সাধারণ সভায় ট্রাস্টিদের সিদ্ধান্ত: বিয়ানীবাজার ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ইউকে লিমিটেড অবৈধ, অবিলম্বে অবৈধ কমিটির কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ

লণ্ডন, ১৩ নভেম্বর – যুক্তরাজ্য প্রবাসী বিয়ানী বাজারবাসির উদ্যোগে ১৯৯৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় বিয়ানীবাজার ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ইউকে। ট্রাস্টিদের কোনো অনুমোদন ছাড়াই ২০১৬ সংগঠনটির নাম পরিবর্তন করে লিমিটেড কোম্পানি করে ফেলা হয়। প্রকৃত কোনো নির্বাচন ছাড়াই গঠন করা হয় কমিটি। এখন এই কমিটিকে অবৈধ ঘোষণার পাশাপাশি বিয়ানীবাজার ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ইউকে লিমিটেডকে অবৈধ বলে ঘোষণা করেছেন সংগঠনের […]

Continue Reading

টরন্টোস্থ বাংলাদেশ সেন্টারে সপ্তাহব্যাপী: ইসলামের ইতিহাস এবং ঐতিহ্য উদযাপন

লণ্ডন, ১৩ নভেম্বর – নজরুল ফাউণ্ডেশন, টরন্টে, ক্যানাডা এবং বাংলাদেশ সেন্টার এণ্ড কমিনিউটি সার্ভিসেস এর যৌথউদ্যোগে টরন্টো শহরের ডেনফোরস্থ বাংলাদেশ সেন্টারে আনুষ্ঠিত হয়ে গেল সপ্তাহব্যাপী ইসলামের ইতিহাস এবং ঐতিহ্য উদযাপন অনুষ্ঠান ।ক্যানাডা কেন্দ্রীয় সরকার এবং অন্টারিও প্রাদেশিক সরকার অক্টোবর মাসকে ইসলামের ইতিহাস এবং ঐতিহ্য উদযাপনের মাস হিসাবে সরকারী ভাবে ঘোষণা করার পর প্রতি বছরই সরকারী […]

Continue Reading

সাবেক মেয়র লুৎফুর রহমানের পিতার ইন্তেকাল: বিপুলসংখ্যক মানুষের অংশগ্রহণে জানাযা ও দাফন সম্পন্ন

লণ্ডন, ১৩ নভেম্বর – টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের সাবেক নির্বাহী মেয়র লুৎফুর রহমানের পিতা হাজী সুরুজ আলী গত ৮ নভেম্বর, শুক্রবার ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন। তিনি ভোর ৪টায় রয়েল লন্ডন হসপিটালে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর।মরহুমের নামাজে জানাযা ওইদিনই শুক্রবার বাদ জুমআ ব্রিকলেন জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। এতে কমিঊনিটির বিপুল মানুষ অংশ […]

Continue Reading

৭৪’র দুর্ভিক্ষ, বাসন্তী’র ছবি ও ফটো সাংবাদিক আফতাব আহমেদ হত্যাকাণ্ড …

মার মন্তব‍্যকথা।। শামসুল আলম লিটন ।। তরুণ সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি রাজধানী ঢাকায় নৃশংস হত্যাকাণ্ডের শিকার হন ২০১২ সালে। পরের বছর ২০১৩’তে ঢাকায় একই রকম আরেকটি নৃশংস ঘটনায় খুন হন বিশিষ্ট আলোকচিত্র সাংবাদিক চুয়াত্তরের দুর্ভিক্ষে বাসন্তী-দুর্গতির ছবি তুলে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খ্যাতি পাওয়া আফতাব আহমেদ। ঢাকার বাংলা মিডিয়ায় কর্মরত আছেন প্রায় পাঁচ হাজার সাংবাদিক আর বিশ্বব্যাপী আরো কয়েক […]

Continue Reading

কুইন মেরী বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘পিস ফর বাংলাদেশ’ সেমিনার : নতুন প্রজন্মের রাষ্ট্র মেরামতের ডাকে সকলের অংশগ্রহণ প্রয়োজন

।। বিশেষ প্রতিবেদক ।। লণ্ডন, ১২ নভেম্বর – যুক্তরাজ্য প্রবাসী বাংলাদেশী তরুনদের উদ্দোগে প্রতিষ্ঠিত সংগঠন ‘পিচ ফর বাংলাদেশ’-এর উদ্দোগে কুইন মেরী বিশ্ববিদ্যালয়ে গত সোমবার অনুষ্ঠিত হল প্রসপেকটিভ বাংলাদেশ বা প্রত্যাশার বাংলাদেশ বিষয়ক প্যানেল ডিসকাশন ধর্মী একটি বুদ্ধিবৃত্তিক সেমিনার।সংগঠনটির চেয়ারম্যান মোঃ ডলার বিশ্বাসের সভাপতিত্বে সেমিনারটি পরিচালনা করেন যুক্তরাজ্য ভিত্তিক জনপ্রিয় টিভি উপস্থাপক, মানবাধিকার কর্মী ও সাংবাদিক […]

Continue Reading

কবে হবে রাজনীতি থেকে মনস্তাত্ত্বিক বিষফোড়ার অবসান

সুরমার মুক্তকথা:।। তাজুল ইসলাম ।। কোন অন্তঃসার শূন্য মেধাহীন স্বার্থপর নেতা নিয়ে আমাদের এতোটানাটানি, এতো আনন্দ, এতো উল্লাস, কেনো আমাদের মধ্যে এই পরিবর্তন? কেনো মানসিকতার বৈকল্য? কেনোআদর্শিক চেতনার অভাব? ইতিহাস-ঐতিহ্যের দেশ বাংলাদেশ, প্রতিবাদের দেশ বাংলাদেশ, অনুপম সম্প্রদায়-সম্প্রীতির দেশ বাংলাদেশ। দক্ষিণ এশিয়ার শান্তিপ্রিয় গনতন্ত্রকামী একটি দেশ বাংলাদেশ। রাজপথে আন্দোলন-সংগ্রামের দেশ বাংলাদেশ, গাজী-শহীদের রক্তেভেজা বাংলাদেশ। বাংলাদেশের মানুষ রাজনৈতিকভাবে সচেতন বহুবছর পূর্বে থেকে। তবে দুর্ভাগ্য বর্তমান সময়ে রাজনীতিতে নেতা বলেন আর কর্মী বলেন উভয়ের কাজের চেয়ে চাপার জোর অনেক গুন বেশি। অনেক সময় দেখা যায় কর্মী মাঠের রাজনীতি করে জীবন যৌবন ক্ষয় করেও নেতার প্রশংসা কুড়াতে পারেন না, আবার কেউ মাঠের রাজনীতির ধারে কাছে না থেকেও চাপা আর টাকার জোরে সহজেই কিন্তু নেতার বাহবা কুড়াতে পারে। তেলমর্দনে যেমন মেধাবিরা অসহায়, তেমনি কালো টাকা আর চাপারকাছে মাঠপর্যায়ের যোগ্য কর্মীরা নেতার কাছে অসহায়, আর এটাই হচ্ছে আমাদের বর্তমান সময়ের সবচাইতে ভয়াবহ ডিজিটাল রাজনীতি। তাড়াতাড়ি নেতা হবার আশায় আমরা অনেক সময় দলের আদর্শকে লালন করিনা, পালন করিনা দলের যোগ্য নেতার নির্দেশ পালন। আবার অনেক সময় নেতার যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে যার ফলে একটা সময়কর্মী শূন্য মাঠে সবাই হয়ে যায় নেতা। আমরা উপযুক্ত একজন নেতা পেলে যেমন গর্জে উঠতে জানি তেমনি জানি সেই নেতার দুর্বলতার সুযোগ খুঁজতে। নেতৃত্ব সবাই দিতে পারে না, আবার সব নেতার নেতৃত্ব সবকর্মীরাও মেনে নেয় না। নেতা সেই হতে পারে যে তার দলের সাধারণ কর্মীদের দুর্বলতাকে জয় করতে পারে, বরং অন্যদেরও শক্তিশালী হওয়ার স্বপ্ন দেখায়।একজন নেতার কাজ নেতৃত্ব নিজের হাতে নেয়ার জন্য নিজের দুর্বলতা খুঁজে বের করা এবং এগুলোকে নিজের ভেতর থেকে দূর করা। নিজের প্রতি কঠোর হতে পারা হচ্ছে উন্নতি, সাফল‍্যও নেতৃত্বের পথে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটা ধাপ।নেতাকে তার লক্ষ্য পূরণের জন্য শুধু এই একটি গুণ অর্জন করাই যথেষ্ঠ।একজন যোগ্য নেতা হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে পারলে, অন্যরাই আগ্রহী হয়ে দলের স্বার্থে আপনার সাফল্যের জন্য কাজ করবে। ১৯৫২, ৬৯, ৭১ অতীত ইতিহাসের দিকে তাকালে দেখবেন আমাদের পূর্ব পুরুষরা সব সময় অন্যায়-অসত্যের বিরুদ্ধে লড়াই করেছেন। তাদের কণ্ঠে যখন বিপ্লবের দানা ধূমায়িত হয়েছিল, তখন তারা ছিলেন পরাধীন। পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙ্গে অন্যায়, অপশাসনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে ছিলেন, তারা মাঠে-প্রান্তে বিপ্লবের ডাক দিয়েছিলেন, গেয়েছিলেন স্বাধীনতার জয়গান। বীরদর্পে উচ্চারণ করেছিলেন “লড়াই লড়াই লড়াই চাই, লড়াই করে বাঁচতে চাই” এবং দীর্ঘ নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে জয়লাভ করে আমাদেরকে এনে দিয়েছেন একটা স্বাধীন-স্বার্বভৌম বাংলাদেশ।এখন রাজপথে রাজনৈতিক মোকাবিলায় যখন আমরা সেই একই স্লোগান দেই ” লড়াই লড়াই লড়াই চাই, লড়াই করে বাঁচতে চাই” তখনই প্রশ্ন জাগে, আমরা কার বিরুদ্ধে, কার সাথে লড়াই করবো? আমাদের বীরপুরুষেরা তো তাদের জীবন বাজি রেখে সেই কাজটি আমাদের জন্য করেই গেছেন! স্বাধীনতার অর্ধশত বছর ছুঁই ছুঁই তারপর এখনও নিজেরা নিজেদের মাঝে লড়াই করার অর্থ হচ্ছে আমরা আমাদের বীরদের বীরত্বকে অস্বীকার করা অসম্মান করা, তাদের দেশপ্রেমকে অস্বীকার করা। স্বাধীনতা লাভের দীর্ঘ সময় পার করেছি কিন্তু আদর্শের ব্যাপারে আমাদের রাজনৈতিক মনস্তাত্ত্বিক দ্বন্দ্বের অবসান করতে পারিনি। তাই আমরা সাধারণ মানুষ আমাদের রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক সফলতা থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। বর্তমান সময়ের রাজনীতিতে দেশ এবং দেশের গণতন্ত্র বা রাজনৈতিক দলের আদর্শ বড় কথা নয়, ক্ষমতার লড়াইয়ে নিজের চেয়ার দখলই বড় কথা। স্বার্থের লড়াইয়ে আমরা পরস্পর নিজেদের মধ্যে অসম প্রতিযোগিতায় মাঠে নামতে জানি অথচ ফেলানির লাশ যখন সীমান্তে কাঁটাতারের উপর ঝুলছিল তখন শুধু আমরা পত্রিকায় চেয়ে চেয়ে দেখি কিন্তু শক্ত প্রতিবাদ করতে সাহস কির না। নিজেদের ক্ষমতার জন্য আমরা অনেক কিছুই করতে পারি, স্বার্থের মোহে চোরাগলিতে পা বাড়াই। আমরা কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করি, তাদের হাতে কলমের বদলে অস্ত্র তুলে দিতে দ্বিধা করি না। আর সে জন্যই তো আবরারের মতো মেধাবী ছাত্রকে নির্মমভাবে প্রাণ দিতে হয় রাজনৈতিক দলের ছাত্র সংগঠনের সন্ত্রাসীদের হাতে। আমরা গনতন্ত্রেরগান গাইতে জানি কিন্তু গণতন্ত্রের কোনো প্র্যাকটিস আমলে নেই না। গনতন্ত্রের মূল মন্ত্রর হচ্ছে ভিন্ন মতের অনুসারী যেন তার মত স্বাধীনভাবে প্রকাশ করতে পারে, কিন্তু বস্তবে আমরা পরস্পরে ভিন্ন মতকে সহ্য করতে পরি না। গণতান্ত্রীক দেশে স্বাধীনভাবে সবার মত প্রকাশের অধিকার আছে সে জন‍্য প্রতিপক্ষের শব্দের মোকাবিলা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করা গণতন্ত্রের ভাষা নয়। এক সময় স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মী থেকে শিক্ষিত যোগ্য নেতা তৈরি হতো […]

Continue Reading

বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালকর্তৃক বিশ্ব স্তন ক্যান্সার সচেতনতা বিষয়ক র‍্যালী ও আলোচনা সভা

৩১ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, অক্টোবর মাস স্তন ক্যান্সার সচেতনতার মাস। প্রতি বছরের ন্যায় এই বছরেও বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতাল স্তন ক্যান্সারের প্রতি সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে নানাবিধ কর্মসূচী গ্রহন করে। উক্ত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সামাজিক সচেতনতামূলক এক বিশাল র‍্যালী ও আলোচনা সভার আয়োজন করে। স্তন ক্যান্সারের প্রতিরোধ ও সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে আয়োজিত বিশাল র‍্যালী সকাল […]

Continue Reading