কমিউনিটি নিউজ

রেবেকা সুলতানা কাউন্সিলার নির্বাচিত

লণ্ডন, ১১ মে : বহুল প্রতিক্ষিত টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের নির্বাচনে প্রথম বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত এমপি রোশনারা আলীর মর্যাদাপূর্ণ আসন বেথনাল গ্রীন বো এলাকার বেথনাল গ্রীন ইষ্ট ওয়ার্ড থেকে লেবার পার্টি থেকে কাউন্সিলার নির্বাচিত হয়েছেন কমিউনিটি এক্টিভিষ্ট রেবেকা সুলতানা। এই ওয়ার্ডের এই প্রথম কোন ব্রিটিশ বাংলাদেশী মহিলা কাউন্সিলার হলেন।
পেশায় স্কুল শিক্ষক রেবেকা টাওয়ার হ্যামলেটের স্কুল গভর্নর হিসেবে অনেক দিন যাবত কাজ করেছেন। ব্যক্তি গত জীবনে তিন সন্তানের জননী রেবেকা সুলতানা বৃটেনের পরিচিত জন সাংবাদিক লণ্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য আহাদ চৌধুরী বাবুর সহধর্মীনী। দুই ছেলে বিলেতের বিখ্যাত কুইন ম্যারী ইউনি ভাসীটিতে অধ্যয়রত । এক ছেলে হামিম চৌধুরী লেবার পার্টির সাথে জড়িত।

রেবেকার দেশের বাড়ী সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার বাউধরন গ্রামে। তিনি শিক্ষানুরাগী হাজী মোবারক মিয়ার বড় মেয়ে। সিলেট শহরের চৌকিদেখী এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা। শ্বশুড় সিলেটের সর্বজন শ্রদ্ধেয় রাজনীতিবিদ বিয়ানীবাজারের দুবাগ ইউনিয়নের এবং চৌকিদেখীর সিলেটের বিশিষ্ট সমাজসেবী মরহুম আলাউদ্দিন চৌধুরী।
কাউন্সিলার রেবেকা সুলতানা সিলেটের সাবেক জনপ্রতিনিধি এবং রাজনীতবিদ মরহুম সোয়েব চৌধুরী, বারবার নির্বাচিত সিলেট সিটি কাউন্সিলার ফরহাদ চৌধুরী শামীম, সিলেটে জেলা ক্রীড়া সংস্থ্যার সহ সভাপতি সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস চৌধুরী রুহেলের ভাইয়ের স্ত্রী।
রেবেকা সুলতানা উচ্চতর শিক্ষা গ্রহণ করে শিক্ষকতা পেশায় জড়িত হন। বেবেকা বিজয় লাভের পর কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, দেশে-বিদেশে আমার পরিবার মানুষের কল্যাণে কাজ করছেন। সেবার মানসিকতা নিয়ে তারই ধারাবাহিকতায় মূলধারার রাজনীতিতে আমার অংশগ্রহণ এবং বিশেষ করে নিজের এবং আহাদ চৌধুরী বাবুর মানুষের প্রতি কমিটমেন্ট দেখে এবং উৎসাহ এবং সহযোগী তায় আমি উদ্ভুদ্ধ হই।
তিনি সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, ধন্যবাদ জানাই আমার সকল স্থরের দলীয় কর্মী, সাথী, কাউন্সিলার এবং বিশেষ করে ওয়ার্ডবাসী এবং মহিলাদের যারা আমার প্রতি আস্থা রেখেছেন ভোট দিয়েছেন। আমি আমার ওয়ার্ডের তথা টাওয়ার হ্যামলেটসের জনগণের কল্যাণে নিবিড়ভাবে কাজ করতে চাই।

রেবেকা সুলতানাকে নির্বাচিত করায় ওয়ার্ডবাসীসহ মিডিয়া এবং সকল পর্যায়ের সবার প্রতি পরিবারের পক্ষে বিশেষ কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ফেরদৌস চৌধুরী রুহেল, আহাদ চৌধুরী বাবু, ফারুক ফুয়াদ চৌধুরী।
উল্লেখ্য, ওয়ার্ডের অন্য দুই কাউন্সিলার হলেন লেবার পার্টির সিরাজুল ইসলাম এবং অ্যাস্পায়ার থেকে আহমেদুল কবির।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

Back to top button
Close
Close