নিউজ

খালেদা জিয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক: দেশব্যাপী রেড এলার্ট

।। শামসুল আলম লিটন ।।
লণ্ডন ২৩ নভেম্বর : সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার অবস্থা আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে অনেক বেশী আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদা জিয়া’র চিকিৎসক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন। বুধবার ঢাকা সময় রাত ৩টায় লণ্ডন থেকে সাপ্তাহিক সুরমার পক্ষ থেকে যোগাযোগ করলে তিনি আরও বলেন, খালেদা জিয়ার অবস্থা ক্রমেই অস্থিতিশীল হয়ে পড়ছে। লিভারের জটিলতা আর অন্য-সব বিষয় একযোগে নিয়ন্ত্রণ দুরূহ হয়ে পড়েছে। মঙ্গলবার তাকে এক ব্যাগ রক্ত দিতে হয়েছে, যদিও রক্ত দেয়া এখন খুবই কঠিন। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ পরিস্থিতি ক্রমেই জটিল করে তুলছে। তিনি বলেন, মেডিকেল বোর্ডের চিকিৎসকদের পরামর্শ হচ্ছে, খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে বিদেশে কোনো ‘অ্যাডভান্স সেন্টারে’ নেওয়া প্রয়োজন। কারণ, সমন্বিত চিকিৎসা ও ব্যবস্থাপনার জন্য দেশের হাসপাতালগুলো যথেষ্ট নয়। এ ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য বা জার্মানির কোনো হাসপাতাল হতে পারে।

ঢাকার বসুন্ধরা এলাকায় এভার কেয়ারহাসপাতালে খালেদা জিয়ার নিবিড় চিকিৎসা চলছে। সার্বক্ষণিক তত্ত্বাবধানে আছেন বিএমএ’র সাবেক মহাসচিব ও ঢাকা মেডিকেল কলেজের ইউরোলোজির সাবেক অধ্যাপক ও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা. জাহিদ। তিনি ওই হাসপাতালে সার্বক্ষণিক অবস্থান করছেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য স্থানান্তরে বিলম্বের কারণে কি ধরণের উদ্বেগ থাকতে পারে? এই প্রশ্নে ডা. জাহিদ সুরমাকে বলেন,ম্যাডামের অবস্থা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবার আশংকা থাকবে। ঢাকায় বিভিন্ন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা একই অভিমত ব্যক্ত করেছেন বলেও জানান তিনি। এদিকে, রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে বলে জানা গেছে। সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে এ রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়। ঢাকার একজন সিনিয়র সাংবাদিক মি. একরামুল হক এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এরপরই পুলিশ, র্যা বসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সব ইউনিটে বাড়তি সতর্কতা নেওয়া শুরু হয়। এমনকি পুলিশের দায়িত্বশীল যেসব কর্মকর্তা ছুটিতে ছিলেন, তাও বাতিল করা হয়েছে। তাদের দ্রুত নিজ নিজ কর্মস্থলে ফেরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একাধিক, দায়িত্বশীল সূত্র বলছে, চিকিৎসার জন্য বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর দাবি ঘিরে কেউ যেন অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে না পারে, সে লক্ষ্যে দেশব্যাপী নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য সংকট নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও গুজব বা অসত্য তথ্য ছড়ানোর কারণে বিশৃঙ্খলার বিষয়টিতেও নজর রাখা হচ্ছে। দেশের সব থানাসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর স্থাপনা ঘিরে সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে। বাড়ানো হয়েছে গোয়েন্দা নজরদারিও।

দেশব‍্যাপী রেডলার্ট জারি

বিএনপির মহাসচিব’র ব্রিফিং
বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে বিএনপি বিটে কর্মরত সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় দলীয় প্রধানের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে ব্রিফিং দেন। এ সময় বিএনপির মহাসচিব বলেন, তাঁর (খালেদা জিয়া) অবস্থা এখনো সংকটাপন্ন। অতি দ্রুত তাঁকে বিদেশে পাঠানো জরুরি। চিকিৎসকেরাও বারবার বলছেন, তাঁকে বিদেশে কোনো অ্যাডভান্সড সেন্টারে চিকিৎসা প্রয়োজন।’

এদিকে, বিএনপির আইনজীবীদের একটি প্রতিনিধিদল খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে মঙ্গলবার আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের সঙ্গে তাঁর সচিবালয়ের কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন। তাঁরা মন্ত্রীকে একটি স্মারকলিপি দেন। এ ছাড়া খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করার দাবিতে বুধবার সারা দেশে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেবে বিএনপি।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

Back to top button
Close
Close