কমিউনিটি নিউজ

নিইউয়র্কে সাংবাদিক ফরিদ আলমের উপর আওয়ামী হামলার প্রতিবাদে লণ্ডনে মানববন্ধন

।। মাহবুব খানসুর ।।

লণ্ডন, ২৯ সেপ্টেম্বর : নিইউয়র্কে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংবাদিক সম্মেলনে সিনিয়র সাংবাদিক ফরিদ আলম উপর আওয়ামী লীগ কর্মীদের হামলার প্রতিবাদে লণ্ডনে মানববন্ধন করেছে মানবাধিকার সংগঠন ইক্য়্যুাল রাইটস ইন্টারন্যাশনাল (ইআরআই) ।
গত ২৭ সেপ্টেম্বর, সোমবার পূর্ব লণ্ডনের ঐতিহাসিক আলতাব আলী পার্কে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা ফরিদ আলমসহ সকল সাংবাদিকদের উপর হামলার নিন্দা জানান ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন। মানববন্ধনে বক্তারা সাংবাদিক ফরিদ আলমের উপর হামলাকে স্বাধীন সাংবাদিকতার উপর নগ্ন হামলার উল্লেখ করে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। বক্তরা বলেছেন, মানুষের স্বাধীনভাবে কথা বলার অধিকারকে যারা ভুলন্ঠিত করে তারা কখনও মানুষের অধিকার রক্ষার কাজ করতে পারে না।
ইকুয়্যাল রাইটস ইন্টারন্যাশনাল এর সাংগঠনিক সম্পাদক জুবায়ের আহমেদ এর সভাপতিত্বে ও সংগঠনের এসিস্টেন্ট সেক্রেটারি মোর্শেদ আহমেদ খান এর পরিচলনায় মানববন্ধনে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউনিভার্সেল ভয়েস ফর হিউম্যান রাইটসের সভাপতি জাকের আহমদ চৌধুরী, সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম মুকুল।
ইউনিভার্সেল ভয়েস ফর হিউম্যান রাইটসের সভাপতি বলেছেন, দেশে সাহসী সাংবাদিকতার কোন স্থান নেই,মানুষের স্বাধীনভাবে কথা বলার কোন সুযোগ নেই। সাহসী সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের বিচারের কোনো হদিস নেই। এখন বিদেশেও গঠনমূলক সমালোচনকারী সাংবাদিকদের গলা টিপে ধরেছে এই অবৈধ্য আওয়ামী লীগ সরকার।
সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম মুকুল বলেন, সাংবাদিক মাহমুদুর রহমান শুরু করে আবুল আসাদ, রহুল আমিন গাজীসহ আজ অসংখ্য সাহসী সাংবাদিক আজ নির্যাতন স্বীকার। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন দিয়ে সবার হাত-পা এখন বাঁধা।সিনিয়র সাংবাদিক ফরিদ আলমের উপর হামলা সভ্য সমাজে কখনও ভাবাই যায় না।
সভাপতির বক্তব্য জুবায়ের আহমেদ বলেছেন, সিনিয়র সাংবাদিক ফরিদ আলম এর উপর হামলায় সাংবাদিক সমাজ আজ ক্ষুব্ধ। দেশে স্বাধীন সাংবাদিকতার পথ আজ বন্ধ। প্রতিবছরই বিশ্বের মুক্ত গনমাধ্যম সূচকে বাংলাদেশ পেছনে দিকে হাটছে। যুক্তরাষ্ট্রের গবেষনা প্রতিষ্ঠান ফ্রিডম হাউস এর ২১ সালের প্রতিবেদনও ইন্টারনেটে বাকস্বাধীনতার সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান একদম তলানিতে।
এছাড়া মানববন্ধনে অন্যান্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন,ইআরআই’র সহ সভাপতি আল আমিন, আজিজুর রহমান, অফিস সম্পাদক মোঃ আবু জাফর আব্দুল্যাহ, ওয়েলফেয়ার সেক্রেটারি সৈয়দ জাকারিয়া, জাতীয় ঐক্যফন্ট ইউকে এর অফিস বিএমএম তামজীদ, ইউনিভার্সেল ভয়েস ফর হিউম্যান রাইটসের সেক্রেটারি সাহান বিন নিজাম,ইআরআই’র অফিস সম্পাদক মোহাম্মদ মাসুদুল হাসান,সহ সম্পাদক ওমর ফারুক,লন্ডন মহানগর যুবদলের সহ সভাপতি বাবুল আহমেদ, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক তোফায়েল আহমেদ,সাবেক শিবির নেতা মোঃ ইকবাল হোসেন, মোঃ সুয়াইবুর রাহমান,মোঃ আবু তাহের, সাইফুর রহমান রাজু, সেচ্চাসেবক দলের সৈয়দ তারেক রশিদ,ছাত্রদল নেতা চৌধুরী তাকি তাজওয়ার, মোঃ আনোয়ারুল আমিন,বিএনপি কর্মী হুমায়ুন আহমেদ, মোঃ রাকিব,সাবেক ছাত্রদল নেতা মোঃ আলী উজ্জল,ফয়সল আহমেদ, যুবদল নেতা রাকিব আহমেদ, ইআরআই’এর সদস্য নন্দন কুমার দে,মানবাধিকার কর্মী মাহফুজ আহমেদ চৌধরী, মোঃ এমদাদুল হক, মাসুক এলাহী, মোঃ ফারুক হোসাইন, রুবি আক্তার, তারেক হাসান, অলি আহমেদ, আশফাক আহমেদ জবলু, মো:ঃ ফাহাদুজ্জামান, মোঃ ফান্টু, মোঃ এমদাদুল হক, বুরহান উদ্দীন মোঃ রুকতা হাসান, মোহাম্মদ আলীম উদ্দীন,মোঃ আব্দুস শহিদ, জুবের আহমেদ,মাঈনুল ইসলাম, সেবুল আহমেদ, শেরওয়ান আলী, এমরান আহমেদ নাঈম সহ প্রমূখ।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

Back to top button
Close
Close