১.৩ মিলিয়ন শিশুর ফ্রি স্কুল মিল ইস্যুতে সরকারের ইউ-টার্ন, রাশফোর্ডের গোলে হেলর গেলেন বরিস

নিউজ

সুরমা ডেস্ক
লণ্ডন, ১৮ জুন – শুধু ক্রীড়ানৈপুন্যই নয়, মানবিকাতায়ও অনন্য। এমনি এক মানবিক নৈপুন্য দেখিয়ে মানুষের মন জয় করে নিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফুটবল ক্লাবের তারকা খেলোয়ার মারকাস রাশফোর্ড। তাঁর ক্যাম্পেইনে ফ্রি স্কুল মিল ভাউচার বিষয়ে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এতে উপকৃত হবে ইংল্যাণ্ডের প্রায় ১ দশমিক ৩ মিলিয়ন শিশু। ব্রিটিশ সরকারের এই ইউ-টার্নকে রাশফোর্ডের কাছে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের পরাজয় হিসেবে দেখা হচ্ছে।

গত মার্চে লকডাউন শুরুর পর থেকে শিশুদের সপ্তাহে ১৫ পাউণ্ডের ফ্রি স্কুল মিল ভাউচার সরবরাহ করলেও ছয় সপ্তাহের সামার হলিডেতে তা বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছিল সরকার। এরপর এক খোলা চিঠিতে ফ্রি স্কুল মিল ভাউচার চালু রাখার আহ্বান জানিয়েছিলেন মারকাস রাশফোর্ড।
তাঁর আহ্বানের প্রেক্ষিতে সরকার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে। মঙ্গলবার টেন ডাউনিং স্ট্রীটে নিয়মিত কোভিড-১৯ প্রেসব্রিফিংয়ে এসে রাশফোর্ডের ক্যাম্পেইনের কথা উল্লেখ করে সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এর আগে নিজে ব্যক্তিগতভাবে রাশফোর্ডের সঙ্গে কথা বলে দারিদ্রের বিরুদ্ধে সোচ্ছার ভুমিকার জন্য তাকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী।
রাজনৈতিক মাঠে গোল দেওয়ার প্রতিক্রিয়ায় বাকরুদ্ধ মারকাস রাযফোর্ড এক টুইটবার্তায় বলেছেন, তিনি ভাষা হারিয়ে ফেলেছেন! ঐক্যে যে অর্জন সম্ভব সেটা আবারও প্রমাণিত হয়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, এটাই ইংল্যা- ২০২০।
১ দশমিক ৩ মিলিয়ন শিশুর ৬ সপ্তাহের ফ্রি স্কুল মিল ভাউচারে সর্বমোট ১শ ২০ মিলিয়ন পাউ- ব্যয় হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন লেবার পার্টির লিডার স্যার কিয়ার স্টারমার।
এদিকে স্কটল্যাণ্ড এবং ওয়েলসে পুরো সামার হলিডেতে ফ্রি স্কুল মিল ভাউচার বহাল থাকবে বলে স্কটল্য- এবং ওয়েলসের ফার্স্ট মিনিস্টার আলাদা আলাদাভাবে ঘোষণা দিয়েছেন। নর্দার্ন আয়ারল্যাণ্ড তা বহাল রাখতে ফান্ডিং চূড়ান্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ফার্স্ট মিনিস্টার।