নিউজ

মনোনয়ন যুদ্ধে আফসানার অভূতপূর্ব জয়: ব্রিটিশ পার্লামেন্টে আরেক বঙ্গকন্যার পদার্পন, সময়ের ব্যাপার মাত্র

সুরমা প্রতিবেদন
লণ্ডন, ২৮ অক্টোবর – সব বাধা-বন্ধক ছিন্ন করে লেবার পার্টির পপলার এণ্ড লাইমহাউজ আসনে এমপি প্রার্থী মনোনীত হয়েছেন ব্রিটিশ-বাংলাদেশী আফসানা। ব্যাপক অভিবাসী, বিশেষ করে বাঙালি অধ্যূষিত টাওয়ার হ্যামলেটস বারার বেথনাল গ্রীন এণ্ড বো আসনের ন্যায় এটিও লেবার পার্টির দীর্ঘদিনের নিরাপদ সিট। এই আসনে যে-ই মনোনীত হবেন তাঁর এমপি হওয়া অনেকটা নিশ্চিত। রোশনারা আলী প্রথম ব্রিটিশ-বাংলাদেশী এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর একে একে এই সাফল্যের ধারায় যুক্ত হন টিউলিপ সিদ্দিক ও রূপা হক। এবার লেবারের এই নিরাপদ আসনে দলীয় এমপি প্রার্থী মনোনীত হওয়ার মাধ্যমে চতুর্থ বঙ্গকন্যা হিসেবে আফসানার ব্রিটিশ পার্লামেন্টে পদার্পন সময়ের ব্যাপার মাত্র। তবে মনোনয়ন যুদ্ধে জয়ী হতে অনেকটা নির্বাচনী কঠিন পরিশ্রমেরই মুখামুখি হতে হয়েছে সুপরিচিত এই তরুণ রাজনীতিক ও কমিউনিটি এক্টিভিস্টকে। স্বজাতি অনেক কাউন্সিলারের প্রকাশ্য বিরুদ্ধাচারণ সত্ত্বেও সাধারণ সদস্যের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয় আফসানা শেষ পর্যন্ত মনোনয়নযুদ্ধে জয়ী হতে সক্ষম হন। কঠিন মনোনয়ন যুদ্ধে আফসানা লেবার পার্টির এমপি প্রার্থী মনোনীত হওয়ায় কমিউনিটতে সুখের আমেজ বিরাজ করছে।

গত ২৭ অক্টোবর, রোববার পার্টি সদস্যদের ভোটে পপলার-লাইম হাউস আসনে আগামী নির্বাচনে লেবার পার্টির প্রার্থী মনোনীত হন আফসানা। বিকেল ৪টায় সেন্ট পলস ওয়ের সেন্ট পলস চার্চে লেবার পার্টির পাঁচ শতাধিক সদস্যের ভোটে প্রার্থী মনোনীত হন তিনি। 
রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শেষে সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হয় নির্বাচনের মূল কার্যক্রম। পপলার লাইম হাউজ সিএলপির চেয়ার মাইক ডেভিসের তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত ভোটে প্রথমে প্রার্থীদের ৫ মিনিট করে নিজের প্রার্থিতার সমর্থনে বক্তব্য প্রদানের সুযোগ দেওয়া হয়। এরপর শুরু হয় গোপন ব্যালেটে ভোট। রাত ৮টায় ভোটের ফলাফল ঘোষণা করেন মাইক ডেভিস। এতে আফসানা বেগম ২৮১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বি সোমালিয় বংশোদ্ভূত কাউন্সিলর আমিনা আলী পান ২২৩ ভোট।
উল্লেখ্য, আফসানা বেগম টাওয়ার হ্যামলেটস লেবার পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান এবং পার্টির লন্ডন রিজিয়নের সদস্য। ওই পদে তিনিই প্রথম কোনো বাঙালি বংশোদ্ভূত। মোমেন্টামের ন্যাশনাল কোঅর্ডিনেটরেরও দায়িত্ব পালন করছেন আফসানা।
এই আসনের বর্তমান এমপি জিম ফিটজপেট্রিক আর নির্বাচন না করার ঘোষণা দেওয়ায় লেবার পার্টি নতুন প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করে আফসানাকে। জিম ফিটজপেট্রিক ২০১০ সাল থেকে এই আসনে লেবার দলীয় এমপি। এর আগে ১৯৯৭ সাল থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত তিনি পপলার অ্যান্ড কেনিংটাউন আসনের এমপি ছিলেন। ২০১০ সালে পপলার অ্যান্ড কেনিংটাউন আসনের নাম বদলে করা হয় পপলার অ্যান্ড লাইম হাউস।
বাংলাদেশের সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার লুদরপুর গ্রামে আফসানার পূর্বপুরুষের বাড়ি। টাওয়ার হ্যামলেটসের এক সময়ের সিরিমনিয়েল মেয়র প্রয়াত কাউন্সিলর মনির উদ্দিন আহমদের মেয়ে আফসানা বেগমের জন্ম ও বেড়ে ওঠা বৃটেনে।

সম্পরকিত প্রবন্ধ

Back to top button
Close
Close