কারিলাইফের ওয়ার্কশপ ও নেটওয়ার্কিং ডিনারে ব্যতিক্রমী উদ্ভাবন: স্বাস্থ্যকর কারি ও ফাস্ট ফুড তৈরীতে কাঁঠালের ব্যবহার

নিউজ

সুরমা প্রতিবেদন

লণ্ডন, ২১ আগস্ট – বাংলাদেশের জাতীয় ফল কাঁঠাল। এই কাঁঠাল শুধু সুস্বাদু ফলই নয় সবজি হিসেবেও এর রয়েছে নানা ব্যবহার। কাঁঠাল দিয়ে স্বাস্থ্যকর ও ব্যতিক্রমী কারি তৈরীর নানা রেসিপি উদ্ভাবন করেছেন রন্ধনশিল্পীরা। বিশেষ করে রেস্টুরেন্টে রেড মিটের বিকল্প হিসেবে কাঁঠালের ব্যবহার যেমন স্বাস্থ্যকর তেমনি অর্থনৈতিকভাবে সফল হওয়ার সম্ভবনাও বেশী এবং তা পশ্চিমা বিশ্বে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে – এমনটিই জানালেন কারিশিল্পের সাথে সংশ্লিষ্টরা। কারিলাইফ ম্যাগাজিনের রন্ধনবিষয়ক ওয়ার্কশপ ও নেটওয়ার্কিং ডিনারে কাঁঠাল দিয়ে কারি ও জনপ্রিয় ফাস্ট ফুড তৈরীর নানা কৌশল ও উপকারিতার কথা তুলে ধরেন তারা। অনুষ্ঠানে কাঁঠাল বিরিয়ানীসহ কয়েকটি ডিশ লাইভ রান্না করে প্রদর্শন করেন স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ের সেলিব্রেটি শেফরা। নৈশভোজ পর্বে নতুন ও ব্যতিক্রমী ডিশ কাঁঠাল বিরিয়ানি অতিথিরদের মাঝে পরিবেশন করা হয় এবং সবাই তা সানন্দে উপভোগ করেন।

গত ১৯ আগস্ট, সোমবার ডকল্যান্ডে হোটেল রেডিশন ব্ল“তে কারি লাইফ আয়োজিত অষ্টম কালিনারি ওয়ার্কশপ ও নেটওয়ার্কিং ডিনারে উপস্থিত ছিলেন হসপিটালিটি ইন্ডাস্ট্রির খ্যাতিমান শেফ ও ম্যানেজার, রেস্টুরেটার্স, ফুড হাইজিন বিশেষজ্ঞবৃন্দ।

কারিলাইফ ম্যাগাজিনের স¤পাদক সৈয়দ বেলাল আহমদের স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, রেস্টুরেন্ট বা টেকওয়েকে প্রতিযোগিতায় টিকিয়ে রাখতে হলে খাবারের মেন্যুতে বৈচিত্র আনা ও ফুড হাইজিন স্ট্যান্ডার্ডের মান ধরে রাখা গুরুত্বপূর্ণ।

বক্তারা আরো বলেন, পশ্চিমের দেশগুলোতে বিশেষ করে ভিগান ও ভেজেটিরায়নদের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে কাঁঠালের বার্গারসহ কাঁঠাল দিয়ে তৈরি নানা খাবার। ইংল্যান্ডে কাঁঠাল আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান বাকলি অ্যান্ড বিল-এর প্রতিনিধি নরিন ফিনামোর কাঁঠালের উপকারি দিকগুলো তুলে ধরেন প্রথমে। এরপর সেলিব্রেটি  স্টার শেফ আবুল মনসুর উপস্থিত অতিথিদের কাঁঠাল বিরিয়ানি রান্না করে দেখান। অনুষ্ঠানের আহার পর্বে তাঁর তৈরি কাঁঠাল বিরিয়ানি ও মিন্ট ক্যাটারার্সের কাঁঠাল বিচি দিয়ে তৈরি কারি অতিথিদের খেতে দেওয়া হয়। এবং এই দুই আইটেম বেশ প্রশংসা কুড়ায়।

অনুষ্ঠানে ইন্ডিয়ান সেলিব্রেটি টিভি শেফ ও কারি বিষয়ক লেখক মৃদুলা বালজেকার তেল বা ঘি ছাড়া চিকেন কোরমা রান্না করে দেখান। অয়েল ফ্রি অন্যান্য রান্নার রেসিপি নিয়েও কথা বলেন তিনি।

সৈয়দ বেলাল আহমদ বলেন, কারি ইন্ডাস্ট্রিতে আমরা বেশ কয়েক বছর ধরে নতুন টেকনিক শেখানো থেকে শুর“ করে রান্না ও খাবারের স্টান্ডার্ড ধরে রাখা ও বাড়ানো, এলার্জি সচেতনতাসহ নানা অনুষ্ঠান করে আসছি। এসব করে মনে হয়েছে, কারি ইন্ডাস্ট্রির কর্মীদের ট্রেইনআপ করা কঠিন। অধিকাংশ কর্মীই শর্টকাট সমাধান খোঁজেন। কিন্তু এভাবে চলবে না। যথাযথ জ্ঞান ও প্রশিক্ষণ এবং আমাদের নিজস্ব ভাবনা মধ্য দিয়েই সমাধান খুঁজতে হবে। ইন্ডাস্ট্রির নতুন ট্রেন্ডের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে হবে।ভিন্নধর্মী এ অনুষ্ঠানে রেস্টুরেন্ট ব্যবসার সম্ভাবনার নানা দিক নিয়ে বক্তব্য রাখেন সেলিব্রেটি মিশেলিন স্টার শেফ মার্ক পয়েন্টন। অনুষ্ঠানে কারি লাইফ-এর ফুড অ্যান্ড হাইজিন বিশেষজ্ঞ শামসুল ইসলাম পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে তুলে ধরেন রেস্টুরেন্ট পরিচ্ছন্ন ও স্বাস্থ্যসম্মত রাখার নানা পদ্ধতি। বাংলা ভাষায় দেওয়া এই প্রেজেন্টেশনে ব্যবসায় টিকে থাকতে হলে যথাযথ প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই বলেও মত দেন তিনি। জাস্ট ইট-এর পক্ষে হাইজিন নিয়ে কথা বলেন তাদের ট্রেনিং পার্টনার এনএসএফ-এর প্রতিনিধি আশ্বিনি পানছল ডিলন।জান্নাত সৈয়দের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানের শেষে প্রশ্নোত্তর পর্ব পরিচালনা করেন কারি লাইফ ম্যাগাজিনের প্রধান স¤পাদক সৈয়দ নাহাস পাশা। সবশেষে ওয়ার্কশপে যোগদানকারী রেস্টুরেন্টের ম্যানেজার ও শেফদের সার্টিফিকেট প্রধান করা হয়।ওয়ার্কশপটি ¯পন্সর করে- জাস্ট ইট, কিংফিশার, মিন্ট ক্যাটারার্স, ইউনিসফট ও ট্রেভেল লিংক।